Articles published in this site are copyright protected.

মুজাফফরনগর মুসলিমদের হিন্দু রায়টের সংবাদ দেখুন। এরপরও তারা স্বপ্ন দেখে বাংলাদেশ পাকিস্তানকে এক করবে। কি কষ্টে যে একদিন এরা ঐ বাঘ নখর থেকে বের হয়ে এসেছিল, তা এসব ভারতীয় মুসলিমের হিন্দি ভিডিওতে একটু হলেও পরখ করুন।

TRUE INDIAN Asaduddin owaisi – Exposing ‘MASTER MINDS’ Behind MUZAFFARNAGAR RIOTS

বিজেপির রাম মাধব দিবাস্বপ্ন দেখে বক্তব্য দিচ্ছেন ভারত পাকিস্তান বাংলাদেশ তিন দেশ এক হবে, হবে অখন্ড ভারত। যুদ্ধ ছাড়াই জনতার মতে হবে কারণ সবার এক সংস্কৃতি এবং তা হচ্ছে হিন্দু সংস্কৃতি। তাই কি ? ঐ একতায় মিলে নাই বলেই ৪৭এর ভাগ আলাদা হওয়া। আজ এত পরে এই রঙ্গরসের কথা কেন ? মূর্তিপূজক আর আল্লাহপূজক কি কখনো এক হতে পারে ? সত্য আর মিথ্যা কি কখনো এক হয় ? মানবতা আর পাশবিকতা কি এক হয় ? আলো আর অন্ধকার কি এক হয় ? দুটির দুই রাস্তা, এ রেলপথ কোনদিনও এক হবে না। হলে দুজনের অপমৃত্যু। একটি মাত্র পথ আছে আলোর মিছিলে অন্ধকার যোগ দিতে পারে। ভুলকে ন্যায়ের পথে আনা যেতে পারে। মিথ্যা সত্যের সাথে যোগ দিতে পারে।

৩৩ কোটি দেবতার পাপে স্বর্গ যে টলমল সেটি আমরা শিশুকাল থেকে ছন্দে শুনেছি। কিন্তু তার বাস্তব যে এত ভয়ঙ্কর তা চিন্তা করিনি। কাল একটি ভিডিও দেখছিলাম একটি মেয়ের পাঁচটি ছেলের সাথে বিয়ে হচ্ছে, সাতপাঁকে বেধে। এ ছেলেগুলি মেয়েটিকে নিয়ে ঘুরছে। ‘সাতপাক’ অনুষ্ঠানটি এসব তাদের বিয়ের কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠান। একটি গল্প সব সময় শুনি সবার মুখে, দ্রৌপদী ছিলেন পঞ্চপান্ডবের স্ত্রী এটি মহাভারতের গল্প। শুনেছি পান্ডবরা পাঁচভাই একটি জিনিস এনে মাকে বললে মা জিনিসটি না দেখেই বলেন ‘ভাগ করে খাও’। মায়ের আদেশ বলে তারা পাঁচজনই একে স্ত্রী রুপে গ্রহন করেন। বাস্তব জীবনে এমন মা না জন্মালেও ধর্মের ময়দানে এমন মা কি ধর্মের অবমাননা আটকায় ? মায়ের এ দৃষ্টিভঙ্গি ওদের ধর্ম ও পথ উভয় হারাবার দায়ে ভরা। মহাভারতসহ বিভিন্ন পুরানে ও মনুসংহিতা নারী বিদ্বেষে পরিপূর্ণ, যেখানে নারী উপস্থাপিত হয়েছে দানবীরূপে। তবে খুঁজে খুঁজে মুসলিমদের সব খবর রাখতো আমার বান্ধবীরা বিগত শতকের ষাটের দশকেও। প্রথম হিল্লা বিয়ে নামের উদ্ভট বিয়ের খবর আমি তাদের মুখ থেকেই জানি। আমি লজ্জায় কুকড়ে একটু হয়ে যাই আর নিজের এ নষ্ট ধর্ম নিয়ে মনে মনে কাতর হয়ে পড়ি। কিন্তু মূলত এসব ইসলামের কোন বিধানই নয়, যেভাবে এ গল্পটি ছড়িয়েছে মূল ছেড়ে। এতে ধর্ম নষ্ট হওয়ার কোন অবকাশই নেই। তাদের পরিবার ঐ এত্তটুকুন বয়সে তাদের ঐ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে পেরেছে, যা আমার পরিবার পারেনি। সেটি হবে আমি ক্লাস সিক্স বা সেভেনে পড়ছি।

পঞ্চ স্বামীর ঘরে থাকা বিবর্তীত পশু প্রকৃতির মেয়েটির যখন বাচ্চা হবে তখন কি করা হচ্ছে, গামলায় চুবিয়ে মেরে ফেলা হবে কারণ এটি মেয়ে। আসন্ন ডেলিভারীর মেয়েটি থাকে চাটাইএর উপর, তবে আনন্দের কথা হচ্ছে বসবাস হবে স্বয়ং মা দেবতার সাথে অর্থে গরুর সাথে। আর এর ফাঁক গলিয়ে পাঁচ ছেলে পর্যায়ক্রমে এসে নিজের পাওনা ভাগটুকু উসল করে নেয়। জানেন এসব দেখার পর কয় রাত শান্তিতে ঘুমুতে পারিনি এজন্যে যে তারপরও কেমন করে ওরা ঐ ধর্মের পক্ষ নেয়, বন্দনা গায় এবং ওটি ধারণ করে থাকে ? এসব কি মানবের ধর্ম ? সাম্প্রতিক সময়ের কন্যা হত্যা হচ্ছে এক নিরব গণহত্যার নাম। ১ কোটি পরিত্যক্ত মেয়ে সে দেশে আর দুই দশকে ২০ লাখ মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। লোহার রড দিয়ে গর্ভের সন্তানকে পিটায় স্বামী শ^শুররা। হরিয়ানা, পাঞ্জাব, দিল্লী, গুজরাটে ছেলেমেয়ের রেশিও ৯০০: ১০০০, এটি বেশ কবছর আগের হিসাব। ভারত ভয়ঙ্কর রাষ্ট্র মেয়ের জন্য। রাস্তা, ডাস্টবিন বাসস্ট্যান্ড বলা যায় এ বোঝা মেয়ে আবর্জনা ফেলার নিরাপদ স্থান। পূজা পায় গরুরা, আর মানুষ পায় পশুর সম্মান। ঐ ভূমিতে শুধু নজরুলরাই বিদ্রোহ করতে জানে। অন্যরা স্বার্থকেই বড় করে দেখে। তাই সেখানে একবিংশ শতকেও গভীর নিরাশার অন্ধকার। জাকির নায়েক ছাড়া আলো নিয়ে কারা আসবে ? ওদেরে আসতে দিন মানুষগুলো অন্তত মানুষ হয়ে বাঁচুক। মোদীর মোমবাতি দমকা বাতাসে টিকবে বলে মনে হয় না। জাকের নায়েকের দুএকটি ভুল হতে পারে, তাই বলে এরকম ভুল এরা করতে শিখে নি। উজ্জ্বল প্রদীপ হাতে এরা আধারেরই যাত্রী। মনে হয় এরাই চারপাশ আলোকিত করতে পারবে।

যে মন্দিরে একরাত থাকলেই হয়ে পড়েন গর্ভবতী!

 

বেশীর ভাগ দেবী কিন্তু মেয়ে তারপরও মেয়েদের আর শুদ্রত্ব কাটে না, মানুষের মর্যাদা পায় না। ধর্মই তাদেরে দেউলিয়া করেছে। ভারতে লিঙ্গ প্রকাশ দন্ডনীয় অপরাধ। এর ফাঁক গলিয়ে চলে মোটা টাকার ব্যবসা। স্বাস্থ্যকর্মীরা মুখের ডান গালে হাত দিলে বুঝবে মেয়ে, পানি খেতে দিলেও মেয়ে। প্রশাসন দেখেও না দেখার ভান করে থাকে। সেখানে মুসলমান আর মেয়ে এ দুই মনে হচ্ছে এককাতারে। সম্প্রতি এক বিস্ময়কর খবর বেরিয়েছে, পাঞ্জবের ১,০০০ বালকের বিপরীতে মাত্র ৩ শত মেয়ে। স্বভাবতই পাঁচ ভাইকে এক বউ বিয়ে করতেই হবে এবং হচ্ছেও। ধর্মতো ঐ দরজা খোলা রেখেছে। এককালে শুনেছিলাম বান্ধবী কারো মুখে মুসলিম ছেলেরা বড়ই বখাটে হয় কিন্তু হিন্দুরা হয় না এর কারণ ব্যাখ্যাতে আসে। দেবর ভাসুর সব সামাল দিতে পারেন হিন্দু কুলবধুরা যা মুসলিম কুলবধুরা মোটেও পারেন না। উত্তর ভারতের দেরাদুনে পাঁচ ভাইএর এক বউ। মেয়েটি জানায় তার মার জীবনও এরকম ছিল। কারো মেয়ে হয়েছে শুনলে মানুষ বিদ্রুপ করে উপদেশ বিলি করে ভ্রুণ টেস্ট করে জেনে নিতে পারলে না? গর্ভপাতে আইনি ঝামেলা সামাল দিতে চতুর ডাক্তার স্ত্রীর প্রজনন পথে একটি বড়ি রেখে দেন। পরের দিন সকালে কাঁপতে কাঁপতে স্ত্রী স্বামীকে সংবাদ দেয় যে প্রশ্রাবের সাথে শিশুর শরীরের অনেক অংশ বেরিয়ে গেছে। স্বামী তাকে সুসংবাদ হিসাবে গ্রহণ করে। কোন কোন অঞ্চলে ভোটাররা ভোটের বদলে বউ চায় নির্বাচনী শর্তে। “বউ দাও জিতে নাও ভোট”। এসব শুধু গরীর পরিবারেই নয়, অন্যরাও এ রোগের শিকার। এককালে আরবের কুরাইশরা এ রোগের শিকার ছিল আমরা বলি আইয়ামে জাহেলিয়া। জোর গলাতে বলা যায়, সেটি এখনো বহাল আছে ভারতে। একই সুরে বিজিপি নেতারা বলছেন, বোমার বদলে বুলেট দিয়ে পাকিস্তানকে ঠান্ডা করা হয়েছে, প্রয়োজনে বাংলাদেশকেও ঠান্ডা করা হবে। বক্তারা নিজেরাই বলছেন তাদের দিন পাল্টেছে, কারণ ময়দানে বিজিপি পশ্চিমবঙ্গের আফগানিস্তান সিরিয়া হবার সুযোগ নেই। যে অমানবিক চিত্র এখানে চিত্রিত হলো এসব কোন সভ্য মানবতার চালচিত্র হতে পারে না ! এসব হতে পারে জাহেলিয়াতি আচার। সপ্তম শতাব্দীতে একই ধারাতে হুমকি ধমকি দিয়েছিল মূর্তিপূজক কন্যাহত্যাকারী কুরাইশরা। কোথায় আজ তারা? ইতিহাসে খুঁজে দেখুন। তাই ইতিহাসের এত আস্ফালন ভয়ঙ্কর সন্দেহ নেই। এসব কি জাহেলিয়াত জাতির নতুন জন্মের আলামত? যে মহাপুরুষেরা ভূমিতে জন্মেও এসব চাপা দিয়ে শুধু মুসলিম বিদ্বেষী ম্লেচ্ছ যবন গালিতে মজে সময় পার করেন তাদের সমাজ এর বেশী আলো কি ভাবে সঞ্চয় করবে ? কলামটি লেখার তারিখ = মার্চ ২০১৬। 

নাজমা মোস্তফা,  ০৬ এপ্রিল ২০১৬

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

Tag Cloud

%d bloggers like this: