Articles published in this site are copyright protected.

নীচে চারপাশ থেকে পাওয়া যুক্তি খবরগুলি পরখ করে নিতে অনুরোধ করছি। বহুদিন থেকে ঘটে চলা ঘটনাগুলি একটির সাথে অন্যটি এক সূত্রে গাঁথা। এসব একটি জাতি ধ্বংসের ধারাবাহিক মঞ্চনাটক ! অকস্মাৎ যাজক, খৃষ্টান, ইতালী, জাপানি, শিয়া নিধনের সহজ জবাব নীচের এসব খবরে লুকিয়ে আছে। আপনারা সচেতন হোন ও সবাইকে সচেতন করে তুলুন ! মাত্র আজই ২০১৬ সালের ২২ মার্চের কুড়িগ্রামে ৬৫ বছরের এক ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধাকে নিজ বাসার সামনে কে বা কারা মটরসাইকেলে এসে গলা কেটে হত্যা করে ! আপনাদের অজান্তে খুনীরা কলিজাতে ঢুকে আপনাদের বুকে ছুরি চালাচ্ছে ! স্মরণ করুণ ১৭ বছর আগে তিনি ধর্মান্তরিত হয়েছেন, কিন্তু আজ তাকে মারা হচ্ছে ! বিগত ১৭ বছর জাতির কোন অসুবিধা হয়নি তার ধর্মান্তরে ! আজ কার স্বার্থে তাকে হত্যা করা হলো ? দয়া করে আপনারা জাগুন, মশাল হাতে জাগুন ! নিরপরাধ বাংলাদেশী সংখ্যাগুরুকে ১০০% ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র চলছে, উপরে নীচে, সামনে পিছনে, ডানে বায়ে ! ধারণা হয়, নবী ইব্রাহিম (আঃ)কে যেভাবে আগুণের মাঝে ছুঁড়ে দেয়া হয়েছিল, আপনাদেরে গোটা দেশের ৯০% মুসলিমকে এক ভাবেই আগুণে নিক্ষেপ করার পরিকল্পনা হচ্ছে ! মনে রাখবেন আল্লাহ কিন্তু তার নবীকে উদ্ধার করে, তারা ষড়যন্ত্র করেছে ঠিকই, কিন্তু আল্লাহর প্রহরায় কেউ তার ক্ষতি করতে পারেনি ! নীচে রাষ্ট্রধর্ম ইসলামকে ঝেড়ে ফেলার প্রস্তুতি বিদেশী পত্রিকা বেশ দিন থেকে বিকট আওয়াজে জানান দিচ্ছে। হতভাগা জাতির সৎ প্রতিনিধিত্বকারী নেই, তাই জাতি দেশের মিডিয়া থেকে এসব জানতে পারে না নীচের খবরগুলিই তার বড় প্রমাণ ! কিয়ামত দোয়ারে ! দাজ্জাল আপনার ফটকে ! সঙ্গিন সময়ে একমাত্র নীতিকে সত্যকে সাথে রাখুন ! আপনারা বদর, ওহুদ, খন্দক পার হচ্ছেন, ভরসা একটাই, আল্লাহ পথ দেখাবেই ! প্রকৃত ষড়যন্ত্রকারী শৃংখলিত হবেই ! আল্লাহ বলে, “নিঃসন্দেহ তারা চাল চালছে, আর আমিও পরিকল্পনা উদ্ভাবন করছি !” (সুরা আতত্বারিক ১৫/১৬ আয়াত) আল্লাহ শ্রেষ্ঠ পরিকল্পনাকারীআমরা জানি, তারপরও অবচেতনের মত ঘুমিয়ে থাকলে চলবে কেন ? হতে হবে আল্লাহর অতন্দ্র প্রহরী, সৈনিক, সত্য সাধক !

আওয়ামীলীগ একটি অভিশপ্ত দল..একি বললেন সাবেক এমপি ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি

সংক্ষেপে কয়টি পয়েন্ট টাচ করবো। বাংলাদেশের মিডিয়ায় ষড়যন্ত্রের খবর পৌছে খুব কম, নয়তো প্রকাশ করতে পারে না ! গলাতে ষাড়াশি দিয়ে চেপে রাখা ! মাহমুদুর রহমানের মতই মিডিয়ার গলা বন্ধ ! ভারতে বা ভিন্ন দেশে এসব মৌজের খবর বের হয় জোরেসোরে ! বহু ঘটনার বিতর্কীত মানিক বলেন, বিচারপতি সিনহা মুক্তিযোদ্ধা বিরোধী রাজাকার ছিলেন। সামিয়া রহমানের উপস্থাপনাতে দেশের বেসরকারী টেলিভিশন ৭১ চ্যানেলের টকশোতে এসব উঠে আসে গত ১৭ জানুয়ারী ২০১৬ তারিখে। ঐ সময় তিনি নাকি ছিলেন পিস কমিটির মেম্বার রাজাকার ! তারপরও এরা পায় বড় মসনদ ! অন্যরা তাদের হাত দিয়েই ফাঁসিতে ঝুলে ! কি ভৌতিক সব শক্তিমানের ডিগবাজী ! ওদিকে গতকালের খবরে জানলাম নতুনভাবে সেনাবাহিনীকে আইনের আওতায় নিতে চায় সরকার ! সবাই বলে এমনিতেই চোখ দাঁত নখ সব কেটে নির্বাক করে রেখেছে। এটি আরেক নতুন পায়তারা ! রয়টার্স, টাইমস অব ইন্ডিয়া, দ্যা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, ডেইলী মেইল-ইউকে, এনডিটিভির খবর, ডেইলি মিরর-আইকে, উর্দু ডন নিউজের খবরে এসব ভরা গলাতে বিস্তারিত এসেছে। ভারতীয়রা প্রতিটি লেখার নীচে শত শত কমেন্ট করেছে, ভারতীয় খুশীর নাচন বাড়বাড়ন্ত, কারণ বাংলাদেশের মুসলিমদেরে জবাই করা যাবে অতি অল্পে ! কিন্তু বাংলাদেশের টকশো মিডিয়া চুপ, চাপা দিয়ে রাখা ! জাতি হাটু পানিতে ডুবে মরার পর জানবে, তার আগে নয় ! গোপন চুক্তি ! অবৈধ পথে আসলে কি হবে চুক্তি করতে কোন বাধা পেতে হচ্ছে না ! দিপুমনি বিগত সময়ে বিনা অর্জনে গোটা বিশে^ ঘুরে বেড়িয়ে হাওয়া খেয়ে আজো জোর গলাতে সুরঞ্জিতি ধারাতে গলাবাজি করে বলছেন, শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে, বাস্তবে যেখানে মৃত্যু আহতের কোন কমতি নেই।  রয়টারের স্পষ্ট খবরে আসে ২৮ বছর পর একটি রিট পুনর্জীবিত করে ইসলাম বাদ দেয়া হচ্ছে। সিনহা বাবু কি ৭১ সালে শান্তি কমিটির রাজাকার হয়ে স্পাই এর কাজে নিয়োজিত ছিলেন ? অংকটা মিলাতে চাই ! তার মানে আজো তিনি কোন পক্ষের স্পাই নন, বলার সুযোগ কম ! তাকেই করা হয়েছে প্রধান বিচারপতি ! ভালই মনে হয়েছিল, এবার দেখি তার গায়েও উৎকট গন্ধ !

ইসলামের নাম নেয়া কিছু সংগঠন ছলবাজদের নিজেদের সৃষ্ট দাবার গুটি। ভারতে মুসলিমদের উপর দাদরী, ঝাড়খন্ড ছাড়াও অসংখ্য উদাহরণ সমানেই এপ্লাই করা হয়। একেতো সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দুর নির্যাতন তার উপর জঙ্গির অপবাদ সাজিয়ে রাখা ! তাদের স্বসার্থে এসব দাবার গুটি তারা সৃষ্টি করে রেখেছে। আজকের যুগে এসব ষড়যন্ত্র চাপা থাকে না ! ময়দান গরম রাখতে ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠী স্বৈরাচারের এটি খুব দরকার ! ভারতে গরুর নামে মুসলিমকে ফাঁসি দেয়া সহজ দুর্ঘটনা ! তাদের পুলিশও তালিতে থেকে নির্যাতীতের ধার ধারে কম ! বিডিআর বিদ্রোহের সব দায় জঙ্গির কাঁধে চাপিয়ে দেয়ার কসরত কম করা হয়নি। দেখা গেছে জঙ্গি ছাপিয়েও সরকারী যোগসূত্র বের হয়েছে বহুবেশী ! নবী মোহাম্মদ যুদ্ধবাজ, সংঘাত প্রিয়, কুরআন জিহাদী বই এসব প্রচারে বাংলাদেশ সরকারও কম যায় না, একই ভাবে বাংলাদেশের সরকার সেক্যুলারিজমের নামে ঐ পথে হাটাই পছন্দ করে ! প্রতারকের প্রশংসা কুড়াতে কুরআনে আগুন দিতেও তারা পিছ পা হয়না !  একই ধারাবাহিকতায় আজ ১৫জনের পক্ষে ১৫ কোটি মানুষকে কবর দিতে উদ্যত হয়েছে সরকার ! তাও আবার ঐ ১৫জনের মাঝে ১০ জন মৃত। মানে মাত্র ৫ জনের জন্য ১৫ কোটির উপর খাড়ার ঘাঁ রেডি রাখা হচ্ছে, ওত পেতে আছে ! আব্দুল কাদের মোল্লা কি আসলেই যুদ্ধাপরাধী ছিলেন? শুনুন তাঁর সাক্ষী ও গ্রামবাসীদের মুখে

নাজমা মোস্তফা,  ২২ মার্চ ২০১৬।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

Tag Cloud

%d bloggers like this: